বাংলাদেশ রবিদাস উন্নয়ন পরিষদের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন

বাংলাদেশ রবিদাস উন্নয়ন পরিষদের উদ্যোগে আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস উদযাপন

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস-২০১৬ পালনে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে বাংলাদেশ রবিদাস উন্নয়ন পরিষদ ও বাংলাদেশ রবিদাস ছাত্র পরিষদ । কর্মসূচির মধ্য ছিল ৯ই আগস্ট সকাল ৯টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের আয়োজনে নির্ধারিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় অংশগ্রহন । এরপর সংগঠনদ্বয়ের নেতৃবৃন্দ জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রবিদাস জাতিকে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর গেজেটে অবিলম্বে অন্তর্ভূক্তির দাবীতে এক মানববন্ধন ও সমাবেশ করে । এছাড়াও একই দাবিতে বিকেল ৪টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জগন্নাথ হল উপাসনালয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

উক্ত কর্মসূচীসমূহে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ রবিদাস উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি দিলিপ রবিদাস । বক্তব্য রাখেন সংগঠনের উপদেষ্টা বিমল চন্দ্র রবিদাস, সুশীল রবিদাস, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক শিপন রবিদাস প্রাণকৃষ্ণ, আন্তর্জাতিক সম্পাদক গৌতম রবিদাস, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক ধনঞ্জয় রবিদাস, টাঙ্গাইল জেলা শাখার নেতা পরেশ রবিদাস, কার্যনির্বাহী সদস্য প্রকৌশলী রবিন রবিদাস, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ-ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সুমন রবিদাস, বাংলাদেশ রবিদাস ছাত্র পরিষদের সভাপতি মোহন রবিদাস, সাধারণ সম্পাদক সুজন রবিদাস, সাংগঠনিক সম্পাদক সুব্রত রবিদাস, কোষাধ্যক্ষ রমন রবিদাস, ছাত্রনেতা বিকাশ রবিদাস, নিমাই রবিদাস, সন্তোষ রবিদাস, রনজিৎ রবিদাস, দিপ্ত রবিদাস প্রমুখ ।

মানববন্ধন, সমাবেশ ও আলোচনাসভায় বক্তাগণ বলেন, “বাংলাদেশের অবহেলিত, অনুন্নত, মূলস্রোত থেকে পিছিয়ে পড়া রবিদাস জাতিগোষ্ঠীকে শুরু থেকেই গেজেটথেকে বাদ রাখা হয়েছে । রবিদাস স্বতন্ত্র ভাষা, সংস্কৃতি, ধর্ম, বিশ্বাস, সমাজব্যবস্থা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত এক স্বয়ংসম্পূর্ন জাতিসত্ত্বা। নিষাদ জনগোষ্ঠীর অন্তর্ভূক্ত সুপরিচিত এ জাতির সাংবিধানিক স্বীকৃতির প্রশ্নে বারবার উপেক্ষা করা হচ্ছে তাদের । এছাড়াও আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (ILO) সহ স্বীকৃত আদিবাসীর সকল সংজ্ঞানুসারে আদিবাসী হিসাবে বিবেচনার যে সকল বৈশিষ্ঠ্য আবশ্যিক তার প্রত্যেকটিই রবিদাস জাতির মধ্য বিদ্যমান। আদিবাসী হতে এমন কোন বৈশিষ্ঠ্য অনুপস্থিত নেই যা রবিদাস জাতির মাঝে কমতি আছে। তবে কোন কারনে রবিদাস জাতিকে আদিবাসী হিসেবে গেজেটে অন্তর্ভূক্ত করা হবে না ? এছাড়াও বাংলাদেশের অবহেলিত, অনুন্নত, মূলস্রোত থেকে পিছিয়ে পড়া ও গেজেট থেকে বাদপড়া, আদিবাসী বিষয়ক সংসদীয় ককাস কর্তৃক সুপারিশকৃত প্রকৃত আদিবাসী রবিদাস জাতিগোষ্ঠীকে সংশোধিত গেজেটে অন্তর্ভূক্ত করার জোর দাবি জানান ।

আমরা রবিদাস জাতিগোষ্ঠী মনে করি “ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠান আইন-২০১০” এ তালিকাভূক্ত ২৭টি জাতির যেসকল স্বতন্ত্র বৈশিষ্ঠ্য রয়েছে তার কোন অংশেই রবিদাসদের কমতি নেই। সারাদেশের আদিবাসী/ ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীদের দাবীর প্রেক্ষিতে ২০১০ সালে প্রণীত উল্লেখিত আইনটি সংশোধনের অংশহিসেবে আরো নতুন ২৬টি ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীকে তালিকাভূক্ত করার কাজ প্রায় সম্পন্ন করা হয়েছে। ইতিমধ্যে আমরা অসংখ্যবার রাজধানী/বিভিন্ন জেলা উপজেলা পর্যায়ে অগণিত বার সভা-সমাবেশ, মানববন্ধন, বিক্ষোভ-মিছিল, স্মারকলিপিপ্রদান করেছি। কর্মসূচি গ্রহন করে সংসদ ভবনে গিয়ে মাননীয় স্পীকারের মাধ্যমে সকল সংসদ সদস্যকে আলাদা করে স্মারকলিপিপ্রদানের কার্যসম্পন্ন করেছি। আমাদের দীর্ঘদিনের প্রানের দাবী, একদফা-একদাবী সংশোধিত গেজেটে রবিদাস জাতিগোষ্ঠীর নাম তালিকাভূক্তির মাধ্যমে দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটবে, বর্তমান রবিদাসবান্ধব সরকারের নিকট এমনটা প্রত্যাশা করতেই পারি। আমরা রবিদাসরা মনেপ্রাণে বিশ্বাস করি বর্তমান সরকার আমাদের প্রানের দাবীর গুরুত্ব অনুধাবনপূর্বক আমাদের আশান্বিত করবেন। আজ আদিবাসী দিবসে আমরা রবিদাসরা স্বপ্ন দেখতে চাই রবিদাস জাতিকে গেজেটভূক্তকরন অবিলম্বেই করবেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য