হুয়াওয়ের স্মার্টফোনে থাকবে না ফেসবুক অ্যাপ্লিকেশন

হুয়াওয়ের স্মার্টফোনে থাকবে না ফেসবুক অ্যাপ্লিকেশন

এবার হুয়াওয়ের পাশ থেকে সরে গেল ফেসবুক। মার্ক জাকারবার্গের প্রতিষ্ঠান জানিয়ে দিয়েছে, হুয়াওয়ের নতুন স্মার্টফোনে থাকবে না ফেসবুক অ্যাপ। থাকবে না ইনস্টাগ্রাম ও হোয়্যাটসঅ্যাপের অ্যাপ্লিকেশনও। শুক্রবার ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এই ঘোষণা দিয়েছে। অবশ্য এ বিষয়ে এখনো হুয়াওয়ের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, হুয়াওয়ের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেসবুক। তবে এই সিদ্ধান্ত হুয়াওয়ের নতুন স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে কার্যকর হবে। অর্থাৎ এখন থেকে যেসব স্মার্টফোন তৈরি করবে হুয়াওয়ে, সেগুলোতে থাকবে না ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম ও হোয়্যাটসঅ্যাপ প্রিইনস্টল অবস্থায় থাকবে না। তবে ডাউনলোড করে এই অ্যাপগুলো ব্যবহার করা যাবে। কিন্তু এই অ্যাপগুলো আর আগে থেকে স্মার্টফোনে প্রিইনস্টল করতে পারবে না হুয়াওয়ে।

ট্রাম্প প্রশাসন গত ১৫ মে হুয়াওয়েকে যুক্তরাষ্ট্রে ‘কালো তালিকাভুক্ত’ করে। সরকারি অনুমোদন ছাড়া মার্কিন সংস্থা থেকে প্রযুক্তিসেবা নেওয়ার পথ বন্ধ হয়ে যায় হুয়াওয়ের। এরপরই অবশ্য এই বিধিনিষেধ ৯০ দিনের জন্য শিথিল করে যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্য বিভাগ। মোবাইল চিপ থেকে শুরু করে সফটওয়্যার পর্যন্ত বিভিন্ন ক্ষেত্রে হুয়াওয়ে নানা মার্কিন প্রতিষ্ঠানের ওপর নির্ভরশীল। এগুলোর মধ্যে আছে গুগল, মাইক্রোসফট, এআরএম, প্যানাসনিকসহ আরও অনেক কোম্পানি। এসব কোম্পানি এখনো হুয়াওয়েকে সেবা দিচ্ছে বটে। কিন্তু তিন মাসের মেয়াদ শেষ হলে এবং নিষেধাজ্ঞা অব্যাহত থাকলে আর কোনো সেবা দেওয়া হবে না।

গুগল বলে দিয়েছে, হুয়াওয়ের বাজারে থাকা ও বিক্রি হয়ে যাওয়া সেটগুলো বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে না। তবে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক কিছুটা ভিন্ন কৌশল নিয়েছে। দ্য ভার্জের খবরে বলা হয়েছে, বাজারে থাকা ও বিক্রি হয়ে যাওয়া স্মার্টফোনে সেবা দেবে ফেসবুক। তবে নতুন সেটে দেওয়া হবে না। নতুন হ্যান্ডসেট বলতে বোঝানো হয়েছে, যেগুলো এখনো কারখানা থেকে বের হয়নি। অর্থাৎ স্মার্টফোন তৈরি হয়ে গেলেও এখনো যদি কারখানা থেকে বের না হয়, তবে সেগুলোতেও ফেসবুক সেবা দেবে না।

ফেসবুকের এই সিদ্ধান্তের ফলে, এখন থেকে নিজেদের স্মার্টফোনে থার্ড পার্টির তৈরি অ্যাপ্লিকেশন সরবরাহ করতে সমস্যায় পড়বে হুয়াওয়ে। সাধারণত এসব প্রিইনস্টল করা অ্যাপ দিয়ে গ্রাহকদের আকর্ষণ করার চেষ্টা করে স্মার্টফোন নির্মাতা কোম্পানিগুলো। এখন থেকে সে ক্ষেত্রে হোঁচট খেতে হবে হুয়াওয়েকে।

এদিকে ফোর্বসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ে স্মার্টফোন তৈরি কমিয়ে দিয়েছে হুয়াওয়ে। তবে চীনা কোম্পানিটি তা অস্বীকার করেছে। ধারণা করা হচ্ছে, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার প্রভাবে বাজারে হুয়াওয়ের স্মার্টফোন সরবরাহ ২০ থেকে ৩০ শতাংশ কমে যেতে পারে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য