৪০ পয়সা খরচ করে বিকাশ-রকেটে ব্যালান্স জানতে হবে

৪০ পয়সা খরচ করে বিকাশ-রকেটে ব্যালান্স জানতে হবে

প্রতিবার মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকাউন্টের ব্যালেন্স জানার জন্য মোবাইল ফোন অপারেটরকে ৪০ পয়সা চার্জ দেওয়ার বিধান সম্বলিত একটি নির্দেশনা আজ জারি করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

ওয়েব সাইটে প্রকাশিত এই নির্দেশনায় বলা হয়েছে, প্রতিবার লেনদেনের জন্যে মোবাইল অপারেটর পাবে ৮৫ পয়সা করে।

তবে বিকাশ বা রকেটসহ অন্যান্য মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলো অপারেটরদের এই খরচ গ্রাহকের ওপর চাপিয়ে দেবে নাকি নিজেরাই সেটি পরিশোধ করবে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

তাছাড়া অ্যাপের মাধ্যমে যারা এসব সেবা ব্যবহার করেন তার ক্ষেত্রে এই খরচ প্রযোজ্য হবে না। শুধুমাত্র আনস্ট্রাকচারড সাপ্লিমেন্টারি সার্ভিস ডেটা (ইউএসএসডি) ডায়ালের ক্ষেত্রে এটা প্রযোজ্য হবে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, প্রতিটি লেনদেন, ব্যালেন্স যাচাই বা স্টেটমেন্ট নেওয়াসহ নানা ধরনের কাজকে একটি সেশন ধারা হবে। আর প্রতিটি সেশনের সময় হবে ৯০ সেকেন্ড। প্রতি সেশনের জন্যে মোবাইল অপারেটরদেরকে ৮৫ পয়সা করে দিতে হবে। একেকটি সেশনের মধ্যে দুটি এসএমএসও থাকবে।

মোবাইল ফাইন্যান্সিয়াল সেবার জন্য এমএফএস প্রতিষ্ঠানগুলো মোবাইল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে। এই নেটওয়ার্ক ব্যবহারের জন্যেই পয়সা দিতে হবে এমএফএস অপারেটরদের।

এর আগে কখনো ব্যালেন্স যাচাই করতে এমএফএস অপারেটরদের কোনো খরচ করতে হতো না। ফলে গ্রাহকরাও ব্যালেন্স যাচাই করতে পারতেন বিনা খরচে।

বিষয়টি সম্পর্কে বিকাশের হেড অব কর্পোরেট কমিউনিকেশনস শামসুদ্দিন হায়দার ডালিম দ্যা ডেইলি স্টারকে বলেন, তারাও বিষয়টি জেনেছেন। কিন্তু অনুষ্ঠানিক কোনো নির্দেশনা এখনো তাদের কাছে পৌঁছায়নি।

তিনি বলেন, বিষয়টি নিয়ে মোবাইল ফোন অপারেটরসহ বিভিন্ন পর্যায়ে আলোচনার প্রয়োজন আছে। তারপরেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

তবে এই খরচ গ্রাহকের একাউন্ট থেকে কাটা হবে না জানিয়ে রবি আজিয়াটা লিমিটেডের চিফ করপোরেট অ্যাণ্ড রেগুলেটরি অফিসার, সাহেদ আলম বলেন, মোবাইল আর্থিক সেবা (এমএফএস) নিয়ে বিটিআরসির সমন্বিত নির্দেশনাকে আমরা স্বাগত জানাই। গত চার বছর ধরে বাংলাদেশ ব্যাংক, বিটিআরসি, মোবাইল অপারেটর এবং এমএফএস সেবাদাতাদের সঙ্গে দীর্ঘ আলোচনার পর ঐকমত্যের ভিত্তিতে সেশন-ভিত্তিক চার্জ শেষ পর্যন্ত বাস্তবায়িত হচ্ছে। এই চার্জ মোবাইল অপারেটরকে প্রদান করবে সংশ্লিষ্ট এমএফএস সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান, গ্রাহকদের ওপর এ চার্জ বর্তাবে না। এমএফএস খাতের বিকাশের মূল হাতিয়ার দেশজুড়ে বিস্তৃত মোবাইল নেটওয়ার্ক। এই নির্দেশনাটির মাধ্যমে ব্যয়বহুল এই অবকাঠোমার গ্রহণযোগ্য একটি আর্থিক প্রবাহ নিশ্চিত হয়েছে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য