মাটিরাঙ্গায় সেটেলার বাঙালি কর্তৃক এক ত্রিপুরা শিশু ধর্ষিত

মাটিরাঙ্গায় সেটেলার বাঙালি কর্তৃক এক ত্রিপুরা শিশু ধর্ষিত

গত ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬ বিকাল ৩টায় খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলার আমতলী ইউনিয়নের জালিয়াপাড়া বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ুয়া এক ত্রিপুরা শিশু স্কুল ছুটির পর বাড়ি ফেরার পথে সেটেলার বাঙালি কর্তৃক ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এ ঘটনায় আমতলী ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল গণি মিয়া গত ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬ সকাল ১১টায় ইউপি কার্যালয়ে এক সালিশে ধর্ষককে ৩৫,০০০ জরিমানা করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
জানা যায়, ঘটনার সময়ে ওই শিশুটি স্কুল ছুটি শেষে একা বাড়ি ফিরছিল পথে সেটেলার গ্রাম জালিয়াপাড়া এলাকায় পৌঁছুলে আগে থেকে ওঁতপেতে থাকা সেটেলার যুবক শিশুটিকে ধরে পার্শ্ববর্তী জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণ করে। পরে পথচারীরা শিশুটির চিৎকার শুনে এগিয়ে এলে সেটেলার গ্রাম জালিয়াপাড়ার মো: রঞ্জু মিয়ার ছেলে ধর্ষক সেটেলার মো: ফারুক হোসেন (২২) পালিয়ে যায়। পথচারীরা আহত অবস্থায় শিশুটিকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে।
এ ঘটনায় গত ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৬ সকাল ১১টায় ইউপি কার্যালয়ে আমতলী ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল গণি মিয়া এক সালিশের আয়োজন করে। সালিশে অভিযুক্ত সেটেলার ধর্ষককে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। সালিশে ধর্ষককে জরিমানাকৃত টাকা দুই কিস্তিতে ( ১ম কিস্তি ১০ হাজার টাকা ও ২য় কিস্তি ২৫ হাজার টাকা) পরিশোধের জন্য বলা হয়েছে। এ সালিশে উপস্থিত ছিল- সাবেক ইউপি মেম্বার জলক ভূষণ ত্রিপুরা, মহিলা মেম্বার (৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড) সঞ্জনা ত্রিপুরা, ৭নং ওয়ার্ড ইউপি মেম্বার মো: ইউনুস মিয়া, ৮নং ওয়ার্ড মেম্বার হেন্দু রঞ্জন ত্রিপুরা, গ্রামের কার্বারী পতি কুমার ত্রিপুরা।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য