আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস ২০১৯ঃ জাতিসংঘের মহাসচিবের বাণী

আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস ২০১৯ঃ জাতিসংঘের মহাসচিবের বাণী

আদিবাসী ভাষা সংরক্ষণ, পুনরুপাদন ও বিকাশের জরুরি প্রয়োজনের প্রতি গুরুত্বারোপ করার জন্য জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে এই বছরটিকে আদিবাসী ভাষার আন্তর্জাতিক বর্ষ হিসাবে ঘোষণা করা হয়।

ভাষা হচ্ছে আমাদের যোগাযোগের মাধ্যম এবং আমাদের সংস্কৃতি, ইতিহাস এবং পরিচয়ের সাথে অঙ্গাঅঙ্গিভাবে জড়িত। বিশ্বে আনুমানিক ৬,৭০০ টি ভাষার মধ্যে প্রায় অর্ধেকের বেশি হচ্ছে আদিবাসীদের। যার বেশিরভাগ ভাষা বিলুপ্তির ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। এই প্রতিটি ভাষার বিলুপ্তির সাথে সাথে, পৃথিবী থেকে ঐতিহ্যবাহী জ্ঞানও হারিয়ে যাচ্ছে।

বিশ্বে আনুমানিক ৩৭ কোটি আদিবাসী জনসংখ্যা রয়েছে। যার একটি উল্লেখযোগ্য সংখ্যা এখনও মৌলিক অধিকার হতে বঞ্চিত, পদ্ধতিগত বৈষম্য এবং অবহেলার শিকার এবং তাদের জীবনধারণ, সংস্কৃতি এবং আত্মপরিচয় একটি চলমান হুমকির মধ্যে রয়েছে। যা আদিবাসী অধিকার বিষয়ক জাতিসংঘের ঘোষণাপত্র এবং টেকসই উন্নয়ন এজেন্ডা ২০৩০ যেখানে প্রতিশ্রুতি রয়েছে কাউকে পেছনে রাখা যাবে না, এসবের পরিপন্থি।

আমি মনে করি সদস্য রাষ্ট্রগুলো আদিবাসীদের নিজস্ব উন্নয়ন নির্ধারণে অংশগ্রহণমূলক, ন্যায়সঙ্গত এবং অভিগম্য নীতিমালা গ্রহণের মাধ্যমে আদিবাসীদের সমর্থন ও অংশগ্রহণ নিশ্চিত করবে। আদিবাসীদের অধিকার এবং আকাক্সক্ষা উপলব্ধি করার লক্ষ্যে সকল উদ্যোগকে জাতিসংঘ সমর্থন জানাতে প্রস্তুত রয়েছে।
………………………..
আন্তোনিও গুতেরেস, ৯ আগস্ট ২০১৯
বাংলায় অনুবাদ: সোহেল হাজং

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য