সাম্প্রদায়িক প্রার্থীকে সংখ্যালঘুরা ভোট দেবে না

সাম্প্রদায়িক প্রার্থীকে সংখ্যালঘুরা ভোট দেবে না

আগামী সংসদ নির্বাচনে সাম্প্রদায়িক কোনো প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়া হলে সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী তাঁকে ভোট দেবেন না। তাই এ ধরনের কোনো ব্যক্তিকে মনোনয়ন না দেওয়ার দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদসহ ১৭টি সংখ্যালঘু সংগঠন।

শুক্রবার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ দাবি জানানো হয়। বলা হয়, অতীতে বা বর্তমানে জনপ্রতিনিধি হয়ে রাজনৈতিক নেতৃত্বে থেকে সংখ্যালঘু স্বার্থবিরোধী কর্মকাণ্ডে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে জড়িত আছেন কেউ কেউ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দাবি-দাওয়া সরকার, নির্বাচন কমিশন, রাজনৈতিক দল ও জাতির সামনে তুলে ধরার লক্ষ্যে আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর বেলা ৩টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জমায়েত করা হবে। পরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা কর্মসূচি পালন করা হবে।

সংবাদ সম্মেলনে অন্য দাবিগুলো উপস্থাপন করে বলা হয়, যে দল বা জোট নির্বাচনী ইশতেহারে সংখ্যালঘুদের স্বার্থযুক্ত ৭ দফার পক্ষে অঙ্গীকার ঘোষণা করবে, ধর্মীয় জাতিগত সংখ্যালঘু সংগঠন তাদের সমর্থন করবে। নির্বাচনের আগে ও পরে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। দেখতে হবে ক্ষুদ্র জাতিসত্তার প্রতিনিধিত্বও। নির্বাচনের আগেই সরকারকে সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয়, জাতীয় সংখ্যালঘু কমিশন গঠন করতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা দাশগুপ্ত লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সভাপতি জয়ন্ত সেন, সাধারণ সম্পাদক তাপস কুমার পাল, ভোলানন্দগিরি আশ্রম ট্রাস্টের সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নির্মল রোজারিও, বাংলাদেশ বৌদ্ধ সমিতির সভাপতি অজিত রঞ্জন বড়ুয়া প্রমুখ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য