চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার ৩৪ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার ৩৪ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

ম্যাকলিন চাকমা: জুম্ম জাতীয়তাবাদের প্রবক্তা , শোষিত – নিপীড়িত মানুষের নেতা মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার (এম এন লারমা) ৩৪ তম মৃত্যুবার্ষিকীতে পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার উদ্যোগে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ২ নং গেইট এলাকায় বিশ্বশান্তি প্যাগোডার প্রাঙ্গনে এক শোকসভা ও মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।

পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ- সাধারণ সম্পাদক কৃতি চাকমার সঞ্চালনায় , পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ- সভাপতি রামভাই পাংখোয়ার সভাপতিত্বে শোকসভার শুরুতে প্রয়াত মহান নেতার স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।
এরপর মহান নেতার স্মরণে শোকসভায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী শিক্ষার্থী সুদীপ্ত চাকমা, রদেভূ শিল্পীগোষ্ঠীর সাংগঠনিক সম্পাদক ধর্মরাজ তঞ্চঙ্গ্যা, বিএমএসসি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সহ- সভাপতি মংক্যে থোয়াই মার্মা, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ২ নং গেইট শাখার দপ্তর সম্পাদক সুপন চাকমা প্রমুখ।

প্রয়াত নেতার স্মরণসভায় বক্তারা বলেন, মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা জুম্মজনগণ তথা অধিকার বঞ্চিত মেহনতি মানুষের কথা বলেছিলেন।পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসী জাতিগোষ্ঠীকে একীভূত করে স্বাধিকার আদায়ের সংগ্রামে বলিস্থভাবে নেতৃত্ব দিয়ে গেছেন।

বক্তারা আরো বলেন,আমাদের এম. এন লারমার আদর্শকে ধারণ করতে হবে।এম এন লারমা তার আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে এখনও জুম্ম জনগণের মাঝে বেঁচে আছেন।
এম এন লারমার আদর্শকে ধারণ করে সংকীর্ণ মনোভাব পরিহার করে জুম্ম জাতীয় অস্তিত্বের সংগ্রামে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে বলেও বক্তারা মনে করেন।
বক্তারা তরুণ প্রজন্মের উদ্দেশ্যে পার্বত্য চট্টগ্রামের বর্তমান পরিস্থিতির কথা তুলে ধরেন।অস্তিত্ব ও সংস্কৃতি রক্ষার্থে নিজেদেরকে আত্ম বলিদানের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়নে এগিয়ে আসার জন্য বক্তারা আহ্বান জানান।

পরিশেষে, মহান নেতার স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও ফানুস উড়ানোর মধ্য দিয়ে স্মরণসভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য