কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক এর শোকসভা

কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক এর শোকসভা

সদ্য প্রয়াত বাসদ আহ্বায়ক কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক ছিলেন নীতিনিষ্ঠ রাজনীতির প্রতীক, তিনি অমৃত্যু নীতিনিষ্ঠ অবস্থানে থেকে রাজনীতি করেছেন বলে উল্লেখ্য করে তার শোক সভায় আলোচক বৃন্দ।
১৯ ডিসেম্বর ২০১৭ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৩টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স হলে কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়।
শোকসভায় সভাপতিত্ব করেন বামমোর্চার সমন্বয়ক ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক। বক্তব্য রাখেন বাসদ (মার্কসবাদী) এর কেন্দ্রীয় নেতা শুভ্রাংশু চক্রবর্ত্তী, সিপিবির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, বাসদ এর কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, বাসদ (মাহবুব) এর কেন্দ্রীয় নেতা শওকত হোসেন আহমেদ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক,কমিউনিস্টলীগের নেতা নজরুল ইসলাম প্রমূখ।
সভা পরিচালনা করেন বাসদ (মাহবুব) এর কেন্দ্রীয় নেতা ও শোকসভা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন।
বক্তাগণ বলেন, কমরেড আ ফ ম মাহবুবুল হক শোষণ-বৈষম্য থেকে দেশবাসীকে মুক্ত করতে শোষনহীন সমাজতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় আজীব লড়াই করেছেন। তিনি ছিলেন ঐক্যের প্রতিক, তার আজ তার স্বপনের বাংলাদেশ গড়তে বামপন্থীদের ঐক্যবন্ধ হওয়ার বিকল্প নেই।
বক্তাগণ বলেন, আ ফ ম মাহবুবুল হক আজীবন সৎ পথে থেকে লড়াই করেছেন। তার মতো সাহস নিয়ে সবাইকে সত্যের সন্ধান করতে হবে। বৈষম্যমুক্ত সমাজ গঠনে আ ফ ম মাহবুবুল হকের আদর্শ সবসময় রাজনৈতিক কর্মীদের পথ দেখাবে বলেও জানান তারা।
প্রসঙ্গত, বাসদের আহ্বায়ক আফম মাহবুবুল হক (৬৯) গত ১০ নভেম্বর বাংলাদেশ সময় সকাল সোয়া ১০টার দিকে কানাডার অটোয়ার সিভিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে গত ২৬ সেপ্টেম্বর তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। তিনি স্ত্রী, এক মেয়ে ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

সকল পোস্ট

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য