বন পাহাড় রক্ষার আন্দোলন অব্যাহত থাকবে

বন পাহাড় রক্ষার আন্দোলন অব্যাহত থাকবে

যতদিন বন পাহাড় আর সেখানকার অধিবাসীদের উপর জুলুম অত্যাচার চলবে ততদিন পর্যন্ত বন পাহাড় রক্ষার আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে জাতিগত নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র আন্দোলন।

রবিবার বিকেলে জাতীয় জাদুঘরের সামনে বিচার বহির্ভুত চলেশ রিছিল হত্যাকান্ডের সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচারের দাবীতে জাতিগত নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সমাবেশে ছাত্র নেতারা তাদের লড়াই অব্যাহত থাকবে বলে জানান।

সতীর্থ চিরানের সঞ্চালনায় সমাবেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতিগত নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র আন্দোলনের যুগ্ন আহ্বায়ক মুর্ছনা মানকিন। এছাড়াও সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ গারো ছাত্র ফেডারেশনের ঢাকা মহানগরের সাধারণ সম্পাদক ব্রলিন দফো, পিসিপি ঢাকা মহানগরের সভাপতি অমর কান্তি চাকমা, জাতিগত নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র আন্দোলনের সদস্য সচিব উন্নয়ন ডি শিরা, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি গোলাম মোস্তফা প্রমুখ।

সমাবেশে সংহতি জানিয়ে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস), চানচিয়া, বাংলাদেশ গারো ছাত্র ফেডারেশন (জিএসএফ), হাজং স্টুডেন্ট কাউন্সিল (হাসুক), পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন সহ বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

ছাত্রনেতারা তাদের বক্তব্যে দেশের বিচার ব্যবস্থার উপর তাদের আস্থাহীনতা প্রকাশ করে বলেন, ১১ বছর আগে আজকের এই দিনে মধুপুরের ইকো পার্ক বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম প্রধান নেতা চলেশ রিছিলকে যৌথবাহিনী নির্মমভাবে অত্যাচার করার পর হত্যা করে। মধুপুর সহ অন্যান্য স্থানের আদিবাসীদের উপর বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত হত্যা, গুম ও ধর্ষনের ঘটনার মত এ ঘটনারও কোন বিচার হয়নি। তৎকালীন তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে এ ঘটনার তদন্ত করার নামে কমিটি গঠন করা হলেও সেই কমিটির কোন প্রতিবেদন এখন পর্যন্ত প্রকাশ করা হয়নি। আমরা চলেশ রিছিল হত্যাকান্ডের ঘটনাসহ দেশের অন্যান্য স্থানে যৌথবাহিনী দ্বারা সংগঠিত হত্যা, গুম ও ধর্ষনের মতন প্রত্যেকটি ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও বিচারের দাবী জানাই।

বক্তারা আরও বলেন, চলেশ রিছিল হত্যাকান্ড কোন বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়, এটি ঐতিহাসিকভাবে আদিবাসীদের উপর চলমান জাতিগত নিপীড়নেরই একটি অংশ। এই ভূখন্ডে ঐতিহাসিকভাবেই আদিবাসীদের উপড় জোড় জুলুম, হত্যা গুম এবং ধর্ষনের মতন ঘটনা ঘটে চলেছে। দিন দিন এই নিপীড়নের মাত্রা বেড়েই চলেছে। এভাবে আর বেশিদিন চলতে পারেনা, বাংলাদেশের ছাত্র সমাজ এই নিপীড়ন কখনো মেনে নেবেনা। যতদিন এই জোর জুলুম চলবে, সবুজের উপর আগ্রাসন চলবে ততদিন পর্যন্ত ছাত্র সমাজ এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে।

সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন চানচিয়ার সমন্বয়ক ও জাতিগত নিপীড়ন বিরোধী ছাত্র আন্দোলনের যুগ্ন আহ্বায়ক আন্তনী রেমা।

এদিকে আজ মধুপুরে চলেশ রিছিলের সমাধিতে স্থানীয় বেশ কয়েকটি সংগঠনের আয়োজনে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেওয়া হয়। এরপর সেখানে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য