শেরপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় একজন আদিবাসীর মৃত্যু

শেরপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় একজন আদিবাসীর মৃত্যু

গত ১২ জুন মঙ্গলবারে শেরপুর জেলার নালিতাবাড়িতে দুই অটো রিক্সার মুখোমুখী সংঘর্ষে আহত হয়ে একজন আদিবাসী মারা গেছে। মারা যাওয়া ব্যক্তির নাম রজনীকান্ত হাজং (৫৮), তাঁর বাড়ি নালিতাবাড়ি উপজেলাধীন কয়ড়াকড়ি নামক গ্রামে। তিনি ঢাকার গাজীপুরে একটি ফার্মে কাজ করতেন। জানা যায়, রজনীকান্ত হাজং বাড়িতে তাঁর ছুটি কাটানোর পর মঙ্গলবার দুপুরের পর নালিতাবাড়িতে ঢাকাগামী বাস ধরার আশায় গ্রাম থেকে অটোরিক্সাযোগে যাত্রা শুরু করেন। কিন্তু কিছুক্ষণ যাওয়ার পর পূর্ব কয়ড়াকড়ি মোড়ে বিপরীত দিক থেকে আসা আরেকটি অটোরিক্সায় সংঘর্ষ বাঁধলে তার রিক্সাটি উল্টে যায় এবং সে নিচে পড়লে তার ওপর অন্য যাত্রীরাও পড়ে। এতে তিনিসহ তিনজন মারাত্মকভাবে আহত হয়। তারপর লোকজন তাদের নালিতাবাড়ি উপজেলা হাসপাতালে নিলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সাংঘাতিকভাবে আহত রজনী হাজংকে তাড়াতাড়ি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে নিতে বলেন। কিন্তু ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে নেওয়ার পথিমধ্যেই রজনী হাজং মারা যান। তাঁর স্ত্রী, একছেলে ও একমেয়ে রয়েছে। একমাত্র ছেলে রঞ্জিত হাজং ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন এবং বুধবার সকালে এলাকার শোকাগ্রস্ত পরিবেশে তার বাবার লাশ দাহ করেছেন বলে জানিয়েছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য