শিক্ষক শিক্ষার্থী আর বন্ধু সুহৃদদের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে রাজীব মীরের শেষ বিদায়

শিক্ষক শিক্ষার্থী আর বন্ধু সুহৃদদের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে রাজীব মীরের শেষ বিদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক: শিক্ষক-শিক্ষার্থী, সহকর্মী বন্ধু-সুহৃদের ভালবাসায় সিক্ত হয়ে শেষ বিদায় নিলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষক রাজীব মীর।

আজ দুপুর ৩ টার দিকে তার মরদেহ শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি প্রাঙ্গণে আনা হয়। সেখানে তার সহকর্মী, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, বন্ধুরা ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ.আ.ম.স. আরেফিন সিদ্দিক, বন্ধু সহকর্মী ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গণযোগাযোগ সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস, ঐক্য ন্যাপের সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য, সাংসদ ঊষাতন তালুকদার, আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং সহ রাজীব মীরের চট্টগ্রাম ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকর্মী শিক্ষক ও শিক্ষার্থী এবং পরিবারের বন্ধু স্বজন।

এর আগে ভারতের চেন্নাই হতে রোববার দুপুর ১২টার দিকে তার লাশ বহনকারী শ্রীলংকান বিমানের একটি ফ্লাইট শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। বাদ জোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

শুক্রবার রাতে ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যের রাজধানী চেন্নাইয়ে গ্লিনিগলস গ্লোবাল হেলথ সিটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রাজীব মীর। বেশ কয়েক মাস ধরে লিভার সিরোসিসে ভুগছিলেন তিনি। চলতি সপ্তাহে তার অপারেশন ও লিভার পরিবর্তনের কথা ছিল।

গত ১৭ জুলাই রাতে রাজীব মীর স্ট্রোক করেন। এর পর লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। শুক্রবার রাত ১টা ৩৭ মিনিটে রাজীব মীরকে মৃত ঘোষণা করেন হাসপাতালের চিকিৎসকরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগের শিক্ষক অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস জানান, রাজীব মীরের দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল সোমবার সকাল ৯টায় ভোলা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে এবং তৃতীয় জানাজা মরহুমের নিজ এলাকা পরাণগঞ্জ হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত হবে এবং পরে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হবে।
রাজীব মীর একাধারে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, মানবতা কর্মী, কবি হিসেবে সবার কাছে পরিচিত ছিলেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য