ভিয়েতনামকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

ভিয়েতনামকে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে দলকে এগিয়ে নিলেন তহুরা খাতুন। দ্বিতীয়ার্ধে ব্যবধান দ্বিগুণ করলেন আঁখি খাতুন। ভিয়েতনামকে হারিয়ে এএফসি অনূর্ধ্ব-১৬ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাইপর্বে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হলো বাংলাদেশ।

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে রোববার ‘এফ’ গ্রুপের ম্যাচে ২-০ গোলে জিতে স্বাগতিকরা। টানা চার জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়ে পরের ধাপে উঠল গোলাম রব্বানী ছোটনের দল।

আগের তিন ম্যাচে যথাক্রমে বাহরাইনকে ১০-০, লেবাননকে ৮-০ এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতকে ৭-০ গোলে হারায় বাংলাদেশ। টানা তিন জয় নিয়ে শেষ ম্যাচে খেলতে নামে ভিয়েতনামও।

বাছাইয়ে চার ম্যাচ মিলিয়ে ২৭ গোল দেওয়া বাংলাদেশের মেয়েরা গোল খায়নি একটিও।

এই ম্যাচের আগে পয়েন্ট, গোল ব্যবধান, মোট গোল – সবই সমান হওয়াতে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হতে শেষ ম্যাচে জয় দরকার ছিল দুই দলেরেই। সেই লক্ষ্যে প্রথম সুযোগটা পায় বাংলাদেশ। পঞ্চম মিনিটে বাঁ দিক থেকে ঋতুপার্ণার এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে বল বাড়ান। কিন্তু বল দূরের পোস্ট দিয়ে বেরিয়ে যাওয়ার আগে শামসুন্নাহার ও তহুরা খাতুন কেউ দরকারি টোকা দিতে না পারলে এগিয়ে যাওয়া হয়নি।

বেশিরভাগ সময় ভিয়েতনামের অর্ধে খেলা হলেও প্রতিপক্ষের রক্ষণ ভাঙতে পারছিলেন না শামসুন্নাহার-মারিয়া-সাজেদারা। ৩৭তম মিনিটে সতীর্থের বাড়ানো বল ধরে ডান দিক থেকে শামসুন্নাহার জুনিয়রের শট ঠিকানা খুঁজে পেলে গোলের আনন্দে মেতে ওঠে পুরো দল। রেফারি পরে সহকারী রেফারির সঙ্গে কথা বলে অফসাইডের বাঁশি বাজান।

প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে কাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পায় গতবারের বাছাইপর্বেও চ্যাম্পিয়ন হওয়া বাংলাদেশ। আনাই মোগিনির শট গোলরক্ষকের গ্লাভস গলে বেরিয়ে যাওয়ার পর শামসুন্নাহার জুনিয়র টোকা দিয়ে সামনে বাড়ান; শেষ মুহূর্তে গোললাইনের একটু ওপর থেকে নিচু হেডে লক্ষ্যভেদ করেন তহুরা।

৫৬তম মিনিটে ঋতুপর্ণার বাঁ পায়ের শটে ঝাঁপিয়ে ফেরান গোলরক্ষক। প্রতিপক্ষের রক্ষণে চাপ ধরে রেখে ৬৩তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে নেয় বাংলাদেশ। মারিয়া মান্ডার কর্নারে শামসুন্নাহার জুনিয়রের হেড পোস্টে লেগে ফেরার পর আখিঁর শটও গোলরকক্ষক ফেরান কিন্তু পুরোপুরি বিপদমুক্ত করতে পারেননি; ফিরতি শটে আখিঁই ঠিকানা খুঁজে নেন।

এবার বাছাইয়ে ৬ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও সেরা দুই দল নিয়ে হবে দ্বিতীয় রাউন্ড। তাই ‘এফ’ গ্রুপের রানার্সআপ হলেও দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার সুযোগ আছে ভিয়েতনামের সামনে।

দ্বিতীয় রাউন্ডে দুই গ্রুপে খেলবে আট দল। দুই গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ উঠবে মূল পর্বে।

গত আসরের চ্যাম্পিয়ন উত্তর কোরিয়া, রানার্সআপ দক্ষিণ কোরিয়া ও তৃতীয় হওয়া জাপান সরাসরি ২০১৯ সালে থাইল্যান্ডে মূলপর্বে খেলবে। স্বাগতিক হওয়ায় থাইল্যান্ডও সরাসরি মূল পর্বে খেলা নিশ্চিত করেছে।

sours: bdnews24.com

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য