আগামীকাল থেকে মধুপুরের চুনিয়া গ্রামে শুরু হচ্ছে সাংসারেক মান্দিদের ওয়ান্না উৎসব

আগামীকাল থেকে মধুপুরের চুনিয়া গ্রামে শুরু হচ্ছে সাংসারেক মান্দিদের ওয়ান্না উৎসব

আগামীকাল থেকে মধুপুরের চুনিয়া গ্রামে শুরু হচ্ছে সাংসারেক মান্দিদের ওয়ান্না উৎসব। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে ১০ নভেম্বর দুপুর পর্যন্ত বিভিন্ন সাংসারেক ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতা দিয়ে পালিত হবে এই উৎসব।

উৎসব উদযাপন নিয়ে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়, মধুপুর শালবনে রাষ্ট্রীয় আইনের মাধ্যমে হাবাহুয়া বা জুম চাষ বন্ধ, মিশনারীদের তৎপরতাসহ আরো নানাবিধ ক্ষমতার মর্দামিতে মান্দিদের নিজস্ব কায়দার উৎপাদন ব্যবস্থা,আপন সাংসারেক ধর্ম ও ধর্মীয় সংস্কৃতির গুম হতে থাকে, নেই হয়ে যেতে থাকে একে একে। আপন ধর্ম, আপন সংস্কৃতি হারানোর বেদনা হৃদয়ে নিয়ে, নয়া প্রজন্মের কাছে অাপন সাংসারেক ধর্ম ও দাকবেওয়াল কিছুটা হলেও তুলে ধরার নিরন্তর দায়বোধ থেকে ২০০৩ সালে মধুপুরের চুনিয়া গ্রামে সাংসারেক খামাল জনিক নকরেক এর আয়োজনে দীর্ঘ প্রায় চল্লিশ বছর পর সাংসারেক মান্দিদের তিন দিন ব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়।

৮ নভেম্বর বিকেলে নকমার বাড়ি রাক্কাশি আমুয়ার মধ্য দিয়ে শুরু হবে ওয়ান্নার আনুষ্ঠানিকতা। এরপর রুগালা-প্রথমে মিনজিরিনি রুগালা, পরে দামদেলনি রুগালা। নকমার বাড়ির রুগালা শেষে গ্রামের অন্যান্য বাড়িতে রুগালা অনুষ্ঠিত হবে। ৯ নভেম্বর দিবাগত রাত্রে ওয়ানচি গাদেবঙা। ওয়ানচি গাদেবঙার পর অাগত সকল অতিথিদের কপালে, শরীরের বিভিন্ন অংশে, ঘরের দেয়ালে, দরজায় ওয়ানচি থক্কা করা হবে। দুপুরের দিকে খামাল নকমান্দিতে জলআন্নার কাজ শুরু করবেন। জলআন্নার পর সাসাৎসুয়া, গুরিরুয়া।ওয়ান্নার তৃতীয় দিনে সকালের দিকে হবে বিশিরি ওয়াত্তা, গ্রীকা, দামাগোগাদা। সবশেষে কাত্তিগালার মাধ্যমে দুপুরের দিকে শেষ হবে টানা তিনদিনের সাংসারেক ওয়ান্না।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য