“সংরক্ষিত বনাঞ্চল” ঘোষণার প্রতিবাদে বাগাছাসের ছাত্র-জনতার গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত

“সংরক্ষিত বনাঞ্চল”  ঘোষণার প্রতিবাদে বাগাছাসের ছাত্র-জনতার গণসমাবেশ অনুষ্ঠিত

আইপিনিউজ ডেস্কঃ মধুপুরের ৯১৪৫.০৭ একর জমিকে বন ও পরিবেশ মন্ত্রনালয় কতৃক “সংরক্ষিত বনাঞ্চল” ঘোষণার প্রতিবাদে ৩০ শে জুলাই সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ছাত্র-জনতার গণসমাবেশ করেছে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস), ঢাকা মহানগর শাখা।
সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বাগাছাস কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি সুবিট রখো, চানচিয়ার সমন্বয়কারী আন্তনী রেমা, মৌলিক বাংলার কেন্দ্রীয় সভাপতি জাহিদ জগৎ, উত্তরা বালবামিদ্দিং আচিক সোসাইটির সভাপতি অবিনাস নকরেক, জয়েনশাহী আদিবাসী উন্নয়ন সংস্থার ঢাকা মহানগর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সম্রাট সাংমা, হাজং ছাত্র সংগঠনের আহবায়ক আশীষ হাজং, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি নিপন ট্রিপুরা সহ আরও বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।
মধুপুরের বিভিন্ন লড়াইয়ের শহীদদের স্মরণ করে চানচিয়ার সমন্বয়কারী বলেন, “আদিবাসীদের লড়াই সংগ্রামের ইতিহাস দীর্ঘ, আদিবাসীদের প্রতিনিয়ত অস্তিত্ব রক্ষার জন্য আন্দোলন করতে হয়। সুদীর্ঘ এই লড়াইয়ের ইতিহাসে আমরা দেখেছি আদিবাসীদের মাথা নত না করা আপোষহীন সংগ্রাম। অতীতে আদিবাসীদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের কাছে নিপীড়করা বারবার নতি স্বীকার করেছে। এবারও আদিবাসীরা সেই ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলবে।”
DSC_0149
সংরক্ষিত বনাঞ্চল ঘোষনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে মৌলিক বাংলার সভাপতি জাহিদ জগৎ বলেন “বাংলাদেশের শোষিত মানুষের কথা সরকার শুনতে চায়না, এ সরকার পুরোপুরি জনবিচ্ছিন্ন সরকার। উন্নয়নের নামে সাধারণ মানুষের উপর চলমান জুলুম অত্যাচার দেশের জনগন মানেনা, মধুপুরের সন্তানরা এ প্রজ্ঞাপন মানেনা, দেশের জনগন সুন্দরবন ধ্বংস করে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র চায়না” ।
হাজং ছাত্র সংগঠনের আহবায়ক আশীষ হাজং বলেন “যে সরকার সুন্দরবন ধ্বংস করে রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করতে চায়, সে সরকারের হাতে মধুপুর বন এবং সাধারণ মানুষ সুরক্ষিত হতে পারেনা।”
জয়েনশাহী আদিবাসী উন্নয়ন সংস্থার ঢাকা মহানগর শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সম্রাট সাংমা হুশিয়ারী জানিয়ে বলেন, “মধুপুরের লাল মাটিতে বেড়ে উঠা সন্তানরা ভূমিকে মায়ের মত ভালবাসে, এ ভূমি থেকে আদিবাসীদের উচ্ছেদ করার জন্য সরকার যে পায়তারা করছে আমরা তা মানিনা, মধুপুরের সর্বস্তরের মানুষ লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত।”
উত্তরা বালবামিদ্দিং আচিক সোসাইটির সভাপতি অবিনাস নকরেক বলেন, “যে ভূমিতে আমার জন্ম হয়েছে, জীবন থাকতে সে ভূমির এক এক ইঞ্চিও দখল হতে দেবনা, জীবন দিয়ে হলেও এ ভূমিকে আমাদের রক্ষা করতে হবে।”
সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন পাহাড়ী ছাত্র পরিষদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি নিপন ট্রিপুরা সহ আরও বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশের সভাপতিত্ব করেন বাগাছাসের ঢাকা মহানগর শাখার সভাপতি অলীক মৃ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য