আদিবাসী সম্প্রদায়ের কাছে ক্ষমা চাইলেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

আদিবাসী সম্প্রদায়ের কাছে ক্ষমা চাইলেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট

দ্বীপরাষ্ট্র তাইওয়ানের আদিবাসী সম্প্রদায়ের কাছে গত কয়েক শতাব্দীর অসদাচরণ ও নিষ্পেষণের জন্য সরকারিভাবে ক্ষমা চেয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট তাই ইং-ওয়েন। দেশটির ইতিহাসে তিনিই প্রথম প্রেসিডেন্ট যিনি এই কাজ করলেন।
তাইওয়ানের স্বীকৃত ১৬টি আদিবাসী গোষ্ঠীর নেতাদের সাথে কথোপকথনকালে প্রেসিডেন্ট তাই বলেছেন, একত্রে সামনে এগিয়ে যাওয়ার আগে তাইওয়ানকে অবশ্যই সত্যের মুখোমুখি হতে হবে। তিনি আরও বলেন, এই উপলক্ষে ঐতিহাসিক বিচারক কমিটি গঠন করা হবে।
আজকের আধুনিক তাইওয়ানের মানুষরা আসলে চীন থেকে তাইওয়ানে এসেছিলেন ৪শ বছর আগে। নবাগত ভিনদেশীদের অত্যাচারে ঐ অঞ্চলের আদিবাসীরা তাদের বসতভিটা হারাতে শুরু করেন। সেই সাথে তাদের শিক্ষা, ভাষা ও সংস্কৃতিও বিলীন হয়ে যায়। তাদেরকে কঠিন চাপের মুখে রাখেন বহিরাগতরা।
তাইওয়ানের জনসংখ্যা ২ কোটি ৩০ লাখেরও বেশি। এই জনসংখ্যার মাত্র ২ শতাংশ হচ্ছে আদিবাসীরা।এমনকি এখনো পর্যন্ত দেশটিতে নিষ্পেষিত হচ্ছে আদিবাসীরা। তাদের চাকরি ও বেতন সাধারণের চাইতে অর্ধেক।
প্রেসিডেন্ট তাই বলেছেন, ‘গত ৪শ বছর ধরে যতগুলো বিদেশি শাসকরা তাইওয়ানে এসেছে তারাই নির্দয়ভাবে আদিবাসীদের আঘাত করেছে। তাদের উপর সামরিক অত্যাচার করেছে, কেড়ে নিয়েছে বাপদাদার বসতভিটা ও জমি। এই অপরাধের জন্য সাধারণ মৌখিক ক্ষমা চাওয়া মোটেই পর্যাপ্ত না।’
বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, প্রেসিডেন্ট আদিবাসীদের প্রতি অঙ্গীকার করে বলেন, আদিবাসীরা যাতে তাদের বিষয় সম্পত্তি ও সংস্কৃতিগত অধিকার ফিরে পায় সেটা তার সরকার নিশ্চিত করবে।
(বাংলামেইল২৪ডটকম অবলম্বনে)

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked with *

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বাধিক মন্তব্য